শীতকালীন সবজি ফুলকপিতে থাকা ভিটামিন এ ও সি বিভিন্ন রোগ যেমন জ্বর, কাশি, সর্দি ও টনসিল প্রতিরোধে কার্যকরী ভূমিকা রাখে। ফুলকপির ভিটামিন ‘এ’ চোখের জন্যও প্রয়োজনীয়।
ফুলকপি পাকস্থলীর ক্যান্সার সেল বা কোষকে ধ্বংস করে। এছাড়া মূত্রথলি ও নারীদের প্রোস্টেট, স্তন ও ডিম্বাশয় ক্যান্সার প্রতিরোধেও ফুলকপির ভূমিকা রয়েছে।

উচ্চ রক্তচাপ, হাই কোলেস্টেরল ও ডায়াবেটিসের রোগীরা ফুলকপি খেতে পারেন নিঃসঙ্কোচে। ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ এবং কোলেস্টেরল কমাতেও ফুলকপি আমাদের বন্ধু।ফুলকপিতে থাকা প্রচুর পরিমাণে আঁশ কোষ্ঠকাঠিন্য প্রতিরোধে বিশেষ সহায়ক। এত গুণে ভরা প্রিয় এই সবজিটি নানা ভাবেই খাওয়া যায়। বিশেষ করে ক্রিসপি ‍ফুলকপি ফ্রাই অনেকেরই খুব পছন্দের।